কর্মবিরতিতে যাচ্ছে না শিল্পী সমিতি, দায়িত্ব নিয়েছেন চার সিনিয়র

14
বিনোদন রিপোর্টঃ
গত ১৯ জুলাই সংবাদ সম্মেলন করে নিজেদের ‘বয়কট’ করার প্রতিবাদ করেছিলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। সভাপতি মিশা বেশ দৃঢ়স্বরে সেদিন জানান, এক সপ্তাহের মধ্যে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮ সংগঠনের ‘বয়কট’ তুলে না হলে শিল্পী সমিতির সদস্যরা কর্মবিরতিতে যাবেন। কাজ করবেন না প্রযোজক সমিতির কোনও সদস্যের।

তবে ১০ দিন হতে চললেও কর্মবিরতিতে যাচ্ছে না শিল্পী সমিতি। জ্যেষ্ঠ শিল্পীদের মতামতকে গুরুত্ব দিয়ে আপাতত প্রযোজকসহ অন্যান্য সমিতির সঙ্গে তৈরি দ্বন্দ্বের সুরাহা করতে চায় শিল্পী সমিতি।
আর এ সমাধানের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে সংসদ সদস্য ও অভিনেতা ফারুক, অভিনেতা সোহেল রানা, আলমগীর ও ইলিয়াস কাঞ্চনের মতো অগ্রজদের।
ইতোমধ্যে প্রযোজক সমিতির সঙ্গে কথা বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। পাশাপাশি শিল্পী নেতাদেরও কড়া ভাষায় নিষেধ করেছেন যেন এ বিষয়ে তারা আর মুখ না খোলেন।
বিষয়টি নিয়ে বাংলা ট্রিবিউনকে জায়েদ খান বলেন, ‘আমরা চাই শান্তিপূর্ণভাবে কাজ করতে। তাই সিনিয়ররা বলেছেন, এ বিষয়ে আর কথা না বাড়াতে। তারা যেহেতু আমাদের মুরুব্বি, তাই তাদের কথা মেনেই আমরা চলছি।’
কর্মবিরতি থেকে পিছিয়ে আসা প্রসঙ্গে এই নেতা বলেন, ‘করোনায় এখন তো এমনিতেই কাজ বন্ধ। তাই কর্মবিরতিতে যাওয়াটাও মানানসই হয় না। তারপরও মূল কথা হলো, আমরা শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। তাই কর্মবিরতি থেকে পিছিয়ে আসা।’
উল্লেখ্য, গত ১৫ জুলাই ‘স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডের’ দায়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির প্রধান দুই ব্যক্তি মিশা সওদাগর ও জায়েদ খানকে ‘অবাঞ্ছিত’ বা ‘বয়কট’ করেছে চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠন। সংবাদ সম্মেলন করে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান সংশ্লিষ্ট সংগঠনের নেতারা। যার নেতৃত্বে ছিল প্রযোজক পরিবেশক সমিতি। ১৯ জুলাই মিশা-জায়েদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেন শিল্পী সমিতির সদস্যপদ হারানো ১৮৪ সদস্য। সেদিন বিকালেই বয়কটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।
সেখানে সমিতির সভাপতি মিশা তার বক্তব্যে স্পষ্ট করে বলেন, ‘আমরা ভয় পাই, আমাদের ভয় দেখাবেন না; ভয় ভেঙে গেলে আমরা সামনে থেকে কথা বলতে একবিন্দু ছাড় দেবো না। তাই আপনাদের সম্মান ধরে রাখতে আমাদের আর ভয় দেখাবেন না। সিনেমায় অভিনয় করি পাজির, আর বাস্তবে আমি কিন্তু হাজি। শান্তির জন্যই এই সমস্যা সমাধানের অনুরোধ করা হলো। তা না হলে আগামী এক সপ্তাহ পর শিল্পীরা কর্মবিরতিতে যাবো।’
তবে এর দুই-একদিন পর নায়ক ফারুক সমাধানের আহ্বান জানালেও প্রযোজক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার সাফ জানিয়ে দেন, মিশা ও জায়েদের পদত্যাগের আগে কোনও আলোচনা নয়। ফারুকের বক্তব্য পক্ষপাতমূলক বলে তার সঙ্গেও বসতে নারাজ বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here